কৃষি তথ্য সার্ভিস (এআইএস) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C

কবিতা (করোনা জয়ের কৃষি) (জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭)

করোনা জয়ের কৃষি

কৃষিবিদ মোঃ  হামিদুর রহমান১

শেখ হাসিনার আহ্বান
মানবো সবাই সপে প্রাণ।
প্রতি ইঞ্চি জমি
চাষ করবো আমি।
বসত ভিটায় বারো মাস
ফল সবজি করবো চাষ।
বাড়ির ছাদে বারো মাস
ফল সবজি করবো চাষ।
খাদ্য, পুষ্টি, অর্থ পেতে
কৃষি কাজে উঠবো মেতে।
ফলাবো ফসল বারো মাস
অভাব দুঃখ করবো নাশ।
যতই আসুক বাধা ভয়
সাহস নিয়ে করবো জয়।
হোক করোনা ভয়ঙ্কর
লড়বো তবু নিরন্তর।
কোটি প্রাণের ঐক্যতান
করোনা জয়ের অগ্নিবান।
মুজিব বর্ষে বাংলাদেশ
শক্তি সাহস অনিঃশেষ।

 

কৃষকের পাশে কৃষিবিদ
ড. সমজিৎ পাল২

বড় বড় কথা যে যাই বলুক, টক শোর শত ঋষি!
ভরসার স্থান একটাই, সেটা-
এই বাংলার কৃষি।
সাত কোটি লোক পায়নি খাবার এই বাংলার মাটিতে
সতেরো কোটিও খাচ্ছে এখন
রয়েছেও পরিপাটিতে।
কমে গেছে জমি, পাল্টেছে যুগ, পাল্টেছে জলবায়ু
পুষ্টিযুক্ত খাবার খাওয়াতে
বেড়ে গেছে তবু আয়ু।
মঙ্গা-মন্দা, মহামারী গেছে, রাজনীতি ডানে-বামে
তারপরও দেশ মাথা তুলে আছে
কৃষকের শ্রমে-ঘামে।
কৃষকের পাশে কৃষিবিদ আছে শত সংগ্রামে সঙ্গী
সুখে-দুখে আর বিপদে-আপদে
জড়িয়ে অঙ্গা-অঙ্গি।
করোনার এই মহাদুর্যোগে উভয়েই আছে মাঠে
যন্ত্রের সাথে, শত শত হাতে
ঝুঁকি নিয়ে ধান কাটে।
পরের ফসল ফলাতে আবার দরকারি বীজ-সার
কৃষকের বাড়ি পৌঁছে দিচ্ছে
সরকারি উপহার।
দুর্যোগ আর দুর্ভোগ শেষে দাঁড়াতেই হবে ঘুরে
কৃষির সকল অংশীজনের
শপথটা এক সুরে।
কাজ করে কেউ, কথা বলে কেউ, কেউ দেখে বসে রঙ্গ
সত্যিই সেলুকাস -
বড়ই বিচিত্র এই বঙ্গ.. ..! য়

১এপিএ এক্সপার্ট পুল সদস্য, কৃষি মন্ত্রণালয় ও প্রাক্তন মহাপরিচালক, ডিএই, খামারবাড়ি, ঢাকা। মোবাইল : ০১৭১১৮০৩৬৯৫, ই-মেইল : hamidur2152@gmail.com ২পরিচালক (গবেষণা), বাংলাদেশ সুগারক্রপ গবেষণা ইনস্টিটিউট, ঈশ্বরদী, পাবনা। মোবাইল : ০১৭১২০২১১৪০, ই-মেইল :samajitpal@bsri.gov.bd

 

ঋতুভিত্তিক ফসল চাষ

ড. মোঃ আলতাফ হোসেন১

ফসলের আছে দুইটি ঋতু- রবি ও খরিফ
ঋতুভিত্তিক ফসল চাষের ধরছি তুলে জরিপ।
রবি  ঋতু শীতের ঋতু, হাড় কাঁপে শীতে
তাপমাত্রা কমতে কমতে নেমে আসে ৪ডিগ্রীতে।
খরিফ হচ্ছে গরমের ঋতু শরীর ঘামে গরমে
রোদ, বৃষ্টি, খরা ও তাপকে রাখতে হবে স¦রণে।
বাংলাদেশের অধিকাংশ ফসলই রবি ঋতুতেই হয়
ধরেছি তুলে ঋতুভিত্তিক ফসল বিন্যাসে বিজ্ঞানীরা কি কয়।
গম, সরিষা, ছোলা, মুসুর শীতের ফসল ভাই
কাঙ্খিত ফলন পেতে হলে ল¤¦া শীত চাই।
নাতিদীর্ঘ হলে শীত ফসল অকালে পরিপক্ক হয়
দানাগুলো পুষ্ট না হয়ে ছোট ছোট হয়ে রয়।
ভূট্টা বেশ শক্ত ফসল উভয় ঋতুতেই হয়
রবিতে চাষেই ফলন বেশী বিশেষজ্ঞেরা কয়।
মাসকলাই ও মুগ গ্রীষ্মকালীন ফসল বুনতে হয় খরিফে
বৃহত্তর বরিশাল অঞ্চলে এর চাষ লেট হয় রবিতে ।
সমুদ্র উপকুলবর্তী এলাকায় ফেলনের চাষ হয়
রবিতেই চাষ সীমাবদ্ধ থাকে খরিফেতে নয়।
তিল চাষ খরিফেতে আর তিসি হয় রবিতে
সূর্যমুখী ও সয়াবিন করা যায় উভয় ঋতুতে।
শীতের সবজী- কপি, মুলা, গাজর আরও আছে সীম দেশী
আগাম চাষ করতে পারলে দাম পাওয়া যায় অনেক বেশী।
টমেটো খুব মজার সবজী রবিতেই ভাল হয়
ছাউনী ও হরমোন প্রয়োগে খরিফেতেও করা যায়।
বেগুনের আছে অনেক গুন উভয় ঋতুতেই চাষ করা যায়
খরিফেতে করলে চাষ পোকা-মাকড়ের আক্রমণ বৃদ্ধি পায়।
কুমড়া সবজী দিবস নিরপেক্ষ সারা বছরই করা যায়
জাতভেদে কেউবা রবি, আবার কেউবা খরিফে ভাল হয়।
রবি মৌসুমে মসলা  চাষে জমির সংকট হয়
গম, ভুট্টা, সবজী ও আলুতে জমি দখল করে রয়।
পিঁয়াজ, মরিচ মসলা ফসল উভয় ঋতুতেই হয়
রসুন শুধু রবিতেই হয়, খরিফেতে নয়।
রবিতে চাষ ধনিয়ার, ফুলগুলো তার সাদা
খরিফেতেই চাষ হয় শুধু হলুদ ও আদা।
আখ ফসল দীর্ঘমেয়াদী সারা বছরই লাগে
এক রবিতে রোপন করলে আরেক রবি আসে।
পাট হচ্ছে খরিফের ফসল, দিবস সংবেদনশীলতা আছে
অধিক খেয়াল রাখতে হবে এই ফসলটি চাষে।
উচ্চ ফলনশীল ধানের দিবস সংবেদনশীলতা নাই
রবি ও খরিফ উভয় মৌসুমে তাই চাষ করে যাই।

 

কৃষকের পাশে কৃষিবিদ
ড. সমজিৎ পাল২
বড় বড় কথা যে যাই বলুক, টক শোর শত ঋষি!
ভরসার স্থান একটাই, সেটা-
এই বাংলার কৃষি।
সাত কোটি লোক পায়নি খাবার এই বাংলার মাটিতে
সতেরো কোটিও খাচ্ছে এখন
রয়েছেও পরিপাটিতে।
কমে গেছে জমি, পাল্টেছে যুগ, পাল্টেছে জলবায়ু
পুষ্টিযুক্ত খাবার খাওয়াতে
বেড়ে গেছে তবু আয়ু।
মঙ্গা-মন্দা, মহামারী গেছে, রাজনীতি ডানে-বামে
তারপরও দেশ মাথা তুলে আছে
কৃষকের শ্রমে-ঘামে।
কৃষকের পাশে কৃষিবিদ আছে শত সংগ্রামে সঙ্গী
সুখে-দুখে আর বিপদে-আপদে
জড়িয়ে অঙ্গা-অঙ্গি।
করোনার এই মহাদুর্যোগে উভয়েই আছে মাঠে
যন্ত্রের সাথে, শত শত হাতে
ঝুঁকি নিয়ে ধান কাটে।
পরের ফসল ফলাতে আবার দরকারি বীজ-সার
কৃষকের বাড়ি পৌঁছে দিচ্ছে
সরকারি উপহার।
দুর্যোগ আর দুর্ভোগ শেষে দাঁড়াতেই হবে ঘুরে
কৃষির সকল অংশীজনের
শপথটা এক সুরে।
কাজ করে কেউ, কথা বলে কেউ, কেউ দেখে বসে রঙ্গ
সত্যিই সেলুকাস -
বড়ই বিচিত্র এই বঙ্গ.. ..! য়


১প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা (কীটতত্ত¡), ডাল গবেষণা কেন্দ্র, ঈশ্বরদী, পাবনা। মোবাইল নং ০১৭২৫-০৩৪৫৯৫,  E-mail: hossain.draltaf@gmail.com; ২উপসহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা, মেট্রোপলিটন কৃষি অফিস, মতিহার, রাজশাহী, মোবা: ০১৭১৮৪০৮৫৪৬; ২পরিচালক (গবেষণা), বাংলাদেশ সুগারক্রপ গবেষণা ইনস্টিটিউট, ঈশ্বরদী, পাবনা।

 


Share with :

Facebook Facebook