কৃষি তথ্য সার্ভিস (এআইএস) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C

কবিতা ফাল্গুন ১৪২৩

*আধুনিক কৃষি
শোয়াইব আলম*

কৃষি যদি কৃষ্টি হয় সব সমৃদ্ধির আধার
কৃষি ছাড়া উপায় নেই তোমার আমার কাহার
বীজ হলো প্রধান উপকরণ লাগে কৃষি কাজে
সাথে থাকবে সার সেচ ব্যবস্থাপনা সব সাজে
কথায় আছে সুবংশে সুসন্তান সুধীজনে কয়
মানলে কথা সুবীজে সুফলন পাবে নিশ্চয়
সমন্বিত বালাই ব্যবস্থাপনা গুণের নাইকো শেষ
কম খরচে বালাই নিয়ন্ত্রণ নির্মল পরিবেশ
কৃষি বিশেষজ্ঞ বলেন তবে সারের রাজা জৈব সার
যত পার  প্রয়োগ করো গোবর কম্পোস্ট সবুজ সার
বেশি ফলন পেতে হলে বীজ সার সেচ যত্ন
গুণীজন বলেন তাই এই চারে মিলে রত্ন
এলসিসি এডব্লিওডি কৃষির নতুন প্রযুক্তি
যথাযথ অনুসরণ করলে আসবে সফল মুক্তি
ট্রান্সপ্লান্টার ড্রামসীডার পাওয়ার থ্রেসার আছে
যুক্তি পরামর্শ সবই আছে পাবেন ডিএই’র কাছে
বীজ শোধন অঙ্কুরোদগম এসব পরীক্ষা করো
বালাইয়ের বিরুদ্ধে কাজে লাগাও বুদ্ধি যত পারো
পরিকল্পিত সেচ দিলে বেশি ফলন হয়
কৃষি প্রযুক্তি পদ্ধতি কৌশল ঠকার কিন্তু নয়
সময় মতো কাটো ফসল পেকে যাওয়ার পর
সাবধানে শুকিয়ে ঝেড়ে তোলো গোলায় কিংবা ঘর
গুটি ইউরিয়া ব্যবহারে ফলন হয় বেশি
মাটি পরীক্ষায় দিও সার দেশি কিংবা বিদেশি
জৈবসার মাটির প্রাণ যত বেশি দাও
মাটির স্বাস্থ্য ভালো করে ফলন বেশি নাও
সব কাজে পরামর্শ নিদের্শনা মেনে চল ভাই
কৃষি বিভাগ ছাড়া আমাদের কোনো উপায় নাই
পরিবেশবান্ধব কৃষি করতে একটু সচেতন হও
কম খরচে লাভ বেশি এর বাহিরে নও
সবাই মিলে করব কৃষি দেশ সমৃদ্ধির জন্য
সুখে শান্তিতে থেকে মোরা হব খুশি ধন্য
কৃষিকথায় সমন্বিত সবার জন্য তথ্য আছে
পঞ্চাশ টাকায় বার সংখ্যার তথ্য কৌশল আছে  
বেতার টিভি আইসিটি হাত বাড়ালেই পাবে
সফল কৃষি করতে হলে সবার কাছে যাবে
আধুনিক কৃষি অনুসরণ করে দেশ হবে সমৃদ্ধ
ফলন উৎপাদনে এগিয়ে যাব দেশ হবে উন্নত
আসুন আমরা সবাই মিলে সোনার দেশ গড়ি
কৃষি সমৃদ্ধ দেশ গড়তে একযোগে কাজ করি।


বহুরূপী জলবায়ু
মো. জুন্নুন আলী প্রামাণিক**

জলবায়ু বহুরূপী রূপধারণে প্রকাশ তার,
অবস্থার প্রেক্ষাপটে গড়ে উঠার স্বভাব তার।
তাপানলে ভয়ানক ক্ষিপ্ত রূপের তা-ব আসে,
ভূমিপৃষ্ঠে তাপদাহ্য অগ্নি গড়ার খেলায় হাসে।
তরুলতা ছারখার মাটি শুকিয়ে বালু কণা উড়ে,
বাতাসের তীব্রতায় বালু উড়ায় আনন্দে ঘুরে।
মহাকষ্ট জীবনের যাত্রা পথের বাধায় পড়ে,
শূন্যতার চিত্রপটে ধু ধু প্রান্তর মরুতে ভরে।
অবস্থান তাপহীন সূর্য কিরণ সামান্য যেথা,
ভয়াবহ তীব্রতায় শীত বর্ষণে বরফ সেথা।
বিরাজিত পরিবেশে তৈরি রূপের তা-ব হাতে,
প্রস্তুতির ভাবনায় ক্ষেপা দৃষ্টির নকশায় মাতে।
সূর্যালোকে জলাবায়ু দ্রুত চলার সুপথ দেখে,
উষ্ণতায় ভারসাম্যে ভূমিপৃষ্ঠের স্বরূপআঁকে।
প্রচলিত জীবজন্তু টিকে থাকার লড়াই করে,
জীবিকার অন্বেষণে ব্যস্ত নয়নে তাকায় ফিরে।
প্রখরতা কোমলতা মৃদু নতুবা সঠিক ত্যাজে,
জমিনের ভাবমূর্তি ফুটে তুলতে ভীষণ সাজে।
ভূগর্ভের বদুগ্যাস মাটি কাঁপিয়ে ফাটিয়ে উঠে,
অফুরন্ত ধূম্ররজালে যন্ত্র ধোয়ায় দূষণ ঘটে।
শোধনের বন্দোবস্তে যারা প্রস্তুত তারাও ব্যর্থ,
জলবায়ু গোলযোগে মত্ত্ব দেখে না মানব স্বার্থ।
ভয়ানক দুর্যোগের ছবি তৈরিতে আকৃষ্ট থাকে,
অনাবৃষ্টি ঘূর্ণিঝড় বন্যা প্রবল প্রতাপে ডাকে।
কৃষকের আদরের নানা ফসল বিপদে ডুবে,
স্নেহময় জলবায়ু ভারী হিংস্র বিচিত্র ক্ষোভে।
সব সর্তকতায় খবর নেব আবহাওয়া দপ্তর হতে
পরিত্রাণ পাব দুর্যোগ থেকে রক্ষা পাব যাতে।

উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা, ফরিদগঞ্জ, চাঁদপুর **গ্রাম-বিদ্যাবাগীশ, উপজেলা-ফুলবাড়ি, জেলা-কুড়িগ্রাম। ০১৭৩৫২০২৭৯৮


Share with :

Facebook Facebook