কৃষি তথ্য সার্ভিস (এআইএস) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C

কবিতা (কার্তিক ১৪২২)

কৃষি মোর অলংকার-কৃষি মোর অহংকার
কৃষিবিদ এ এইচ ইকবাল আহমেদ*

              ...ক...
‘ কৃষি মোর অলংকার  আছে সারা গায়
ভোর থেকে সাঁজতক  মাঠে পড়ে থাকি
বাতি জ্বেলে রাতে করি  যত কাজ বাকি
মাথা থেকে পায়ে ভরা  মাঠের ধুলায় ’।

 

গোথানে গরুর ‘হাম্বা; নাতি ডাকে ‘নানা ’...
বউ কয় ‘মরে যাই  শাড়িখানা ছেঁড়া’
জোছনায় উকি মারে পেয়ে ভাঙ্গা বেড়া
আমারে সবাই বলে ‘দিতে হবে খানা ’।

 

বলি, ‘সবে ধৈর্য ধর  মাঠ ভরা ধান
লাগায়েছি যত্ন করে  হরেক ফসল
সারাবেলা মাঠে খাটি  বানাতে সম্বল
বিধাতা দিবেন জানি  এর প্রতিদান’।

 

‘কৃষি মোর অহংকার,  অন্ন বস্ত্র ঘর
ভরে দেয় শ্রমে ঘামে  বিস্তীর্ণ প্রান্তর’।

                 ...খ...

এখন আমাকে তুমি  দেখবে কিভাবে ?
কিছু হলে গালি দাও  ‘তুই বেটা চাষা’
আমার বুলিতে ঝরে  প্রিয় মাতৃভাষা
আপাদমস্তক দেখে  বাঁকা চোখে চাবে!

 

নিজের ফসল বেচে  শোধ করি ঋণ
ছেলেরা কামাই করে  সুদূর বিদেশে
মেয়েটাও কাজ করে  গার্মেন্টসে এসে
আমাদের পরিশ্রমে   এসেছে সুদিন।

 

দেশের সমৃদ্ধি আর  উচ্চতর ধাপ
করেছি সবাই মিলে  ঐক্যবদ্ধ হাতে।
এখন দু’বেলা পেট  ভরা থাকে ভাতে
দেখা হলে লোকে বলে ‘অমুকের বাপ’।

 

গ্রামীণ দারিদ্র্য ঘুচে  সমাজ এবার
পেয়েছে সুরক্ষা প্রিয়  দেশটি আমার।
                 ... গ...
কৃষিকর্ম  করি যারা  খেয়েগেছি গালি
আচার ও আচরণে  হদ্দ গেঁয় চাষা,
বস্ত্র কেউ দিত যদি  তাও জোড়াতালি
এখন দেখলে বলে  গাঁ সম্পর্কে চাচা।

 

উচ্চারণে ত্রুটি ধরে  উঁচু হতো হাসা
শীত গ্রীষ্মে মাঠে গেলে  রইতো গা খালি,
ঘষেমেজে বলা হতো  চাষাদের ভাষা
আজ কথা বলে পাই  জোরে হাততালি।

 

আগে ছিল ভাঙ্গাচালা  মাচাঙ্গে শুতাম
এখন করেছি ঘর   কাঠ কেওয়ারি,
ফতুয়া গতরে ছিল  ছিল না বুতাম
আজ গায়ে নয়া জামা তার রাঙা শাড়ি,
ভরা থাকে বারো মাস ধানের গুদাম
 প্রতিদিন ভিড় করে  কতেক বেপারি।

              ... ঘ...

পরিবারে সবে এক হয়ে মিলেমিশে
যত্ন করে গড়ে তুলি জৈবিক খামার।
পৈতৃক পুকুরে  মাছ হাঁসের সাঁতার
পাড়ে ফলমূল  মাঠ ভরা ধান শিষে।

 

সোনালী আঁশের  দিন হয়ে গেছে সারা
নদী গেছে মরে  পানি নাই শুধুু বালু
সেখানে ফলাই ভুট্টা সবজি ও আলু
মনে বল নিয়ে  করি বিপদেরে তাড়া।

 

আশ্বিনের মঙ্গা  আর অনাহারি দিন
অতীত দিনের  স্মৃতি হলো চিরতরে
ধান চালে রয়  ভরা প্রতি গোলাঘরে
ঘাটতি কথারে  ঝেঁটে করেছি বিলীন।

 

নিজেরা দাঁড়িয়ে  গেছি নিজ নিজ পায়ে
কৃষিরে বাঁচিয়ে  রাখি জীবনের দায়ে।


* পরিচালক (অব), বীজ প্রত্যয়ন এজেন্সী। সেল:০১৫৫৮ ৩০১ ৯০৮ ahiqbal.ahmed@yahoo.com


Share with :

Facebook Facebook