কৃষি তথ্য সার্ভিস (এআইএস) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C

সম্পাদকীয় অগ্রহায়ন-১৪২১

বাংলাদেশের অর্থনীতির মূল চালিকাশক্তি হলো কৃষি। এজন্য কৃষির সার্বিক উন্নয়নে সুপরিকল্পিতভাবে পরিশ্রম করে যাচ্ছেন এ দেশের সরকার, কৃষি গবেষক, সম্প্রসারণবিদ, কৃষিকর্মী, কৃষক-কৃষাণি সবাই। পরিবর্তিত আবহাওয়া ও বিশ্ব অর্থনৈতিক পরিবেশ আমাদের জন্য একটা বড় চ্যালেঞ্জ। এ চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে কৃষিতে অবশ্যই সাফল্য লাভ করতে হবে। বিশ্বব্যাপী খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ এখন সময়ের দাবিতে পরিণত হয়েছে। সবার জন্য নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা (এফএও) প্রতি বছর ১৬ অক্টোবর বিশ্ব খাদ্য দিবস পালন করে আসছে। প্রতিবারের মতো এবারও বাংলাদেশে বিশেষ গুরুত্ব সহকারে পালিত হয়েছে এ দিবসটি। এবারের এ দিবসের প্রতিপাদ্য ছিল ‘পারিবারিক কৃষি : প্রকৃতির সুরক্ষা, সবার জন্য খাদ্য’। দিবসটি পালন উপলক্ষে আয়োজিত সেমিনারে উপস্থাপিত মূল প্রবন্ধে পারিবারিক কৃষির মাধ্যমে খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতের ওপর বিশেষ গুরুত্ব আরোপ করা হয়। আর পারিবারিক কৃষির কর্মপরিকল্পনা গ্রহণের সবচেয়ে উপযুক্ত সময় হলো অগ্রহায়ণ মাস। ক্ষুদ্র, মাঝারি ও বড় কৃষকের বাড়িকে কেন্দ্র করে যে বহুমুখী কৃষি খামার গড়ে তোলা হয় তাকেই আমরা পারিবারিক কৃষি খামার বলে থাকি। এ খামারে বাড়ির সদস্যরা সবাই মিলে কাজ করতে পারে। এজন্য উৎপাদন খরচ কম হয়, জৈব কৃষি ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করা সহজ হয় এবং পারিবারিক পুষ্টি সরবরাহের পথ সুগম হয়। এক কথায়  কৃষি ও কৃষকের আর্থসামাজিক উন্নয়নের একটা সম্ভাবনাময় মাধ্যম হলো পারিবারিক কৃষি। তাই আসুন, সুপরিকল্পিতভাবে পারিবারিক কৃষি খামার গড়ে তুলে নিজের ও দেশের খাদ্য ও পুষ্টি চাহিদা পূরণে সচেষ্ট হই।
 
     চাষি ভাইরা, আপনারা জানেন ঋতু বৈচিত্র্যের প্রেক্ষাপটে অগ্রহায়ণ মাস আমাদের দেশে নবান্নের মাস বলে পরিচিত। এ সময় নতুন ধানের আগমন আর শীতকালীন ফসলের সম্ভাবনাময় ভবিষ্যতের আভাস কৃষক-কৃষাণির মনে আনন্দের জোয়ার বইয়ে দেয়। রবি মৌসুম আমাদের কৃষির জন্য একটি সম্ভাবনাময় মৌসুম হলেও এ সময় মাটিতে রস কম থাকে। তাই ফসলের ক্ষেতে চাহিদামাফিক সেচ প্রদান নিশ্চিত করতে হবে। এছাড়া উন্নতমানের উচ্চফলনশীল বীজ ও ফসল উৎপাদনের সঠিক প্রযুক্তি ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। আমাদের সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় আধুনিক উপায়ে অন্যান্য কৃষি কর্মকাণ্ডের পাশাপাশি পারিবারিক কৃষির সফল বাস্তবায়ন আমাদের কাক্সিক্ষত গন্তব্যে পৌঁছাতে পারে বলে আমাদের দৃঢ় বিশ্বাস।

Share with :

Facebook Facebook