কৃষি তথ্য সার্ভিস (এআইএস) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১১ মার্চ ২০১৯

এলাকা উপযোগী সম্ভাবনাময় নতুন ফসলের জাত সম্প্রসারণের উপর কৃষি সচিবের গুরুত্বারোপ


প্রকাশন তারিখ : 2019-03-10

চট্টগ্রামের আগ্রাবাদস্থ খামারবাড়ী চত্বরে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর এর চট্টগ্রাম জেলার জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের কর্মকর্তাদের এক মত বিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। মত বিনিময় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কৃষি মন্ত্রণালয়ের সচিব জনাব মোঃ নাসিরুজ্জামান মহোদয়। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর এর মহাপরিচালক কৃষিবিদ মীর নূরুল আলম মহোদয়ের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মত বিনিময় সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর এর সরেজমিন উইং এর পরিচালক কৃষিবিদ ড. মোঃ আব্দুল মুঈদ। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম জেলার উপপরিচালক কৃষিবিদ মোঃ আমিনুল হক চৌধুরী এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত মত বিনিময় সভায় স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক কৃষিবিদ মোঃ আবুল হোসেন তালুকদার। অনুষ্ঠানে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর এর অঞ্চল, জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের কর্মকর্তা ছাড়াও কৃষি মন্ত্রণালয়ধীন বিভিন্ন দপ্তর ও সংস্থার কর্মকর্তাগন অংশগ্রহন করেন।


অনুষ্ঠানে উপজেলা পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সাথে আনুষ্ঠানিক মত বিনিময় কালে কৃষিমন্ত্রণালয়ের সচিব জনাব মোঃ নাসিরুজ্জামান মহোদয় বলেন, এলাকা উপযোগী ফসল আবাদ সম্প্রসারণের উপর গূরুত্বারোপ করতে হবে। বহুদিন ধরে আবাদ হয়ে আসা ফসলের পুরাতন জাত সমূহকে গবেষণা প্রতিষ্ঠান উদ্ভাবিত সম্ভাবনাময় নতুন জাত দিয়ে প্রতিস্থাপন করে তা সম্প্রসারণের দিকে মনযোগ দিতে হবে। তাজা সবজিতে কীটনাশক সহ বিভিন্ন রাসায়নিকের যথেচ্ছা ব্যবহার যেন না হয় সেদিকে সর্তক লক্ষ্য রাখতে হবে। প্রতি জেলায় নিরাপদ সবজি বিক্রয় কর্ণার করা যায় কিনা সে সম্ভাবনা খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করতে হবে। সম্ভব হলে যে এলাকায় সবজি উৎপাদন বেশী হয় সেখানের অগ্রসর কৃষকদের দিয়ে পলিশেড তৈরী করে নিরাপদ সবজি উৎপাদনের বিষয়টি বিবেচনা করা যেতে পারে। উৎপাদিত নিরাপদ সবজির ভোক্তা পর্যায়ে প্রাপ্যতা নিশ্চিত করার জন্য সম্বন্বিত প্রচেষ্টা গ্রহন করতে হবে।


মত বিনিময় সভার সভাপতি কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর এর মহাপরিচালক কৃষিবিদ মীর নুরুল আলম মহোদয় তাঁর বক্তব্যে বলেন, নতুন জাত সম্প্রসারণের লক্ষ্যে মাঠ পর্যায়ে আয়োজিত মাঠদিবস সমূহে পরবর্তী মৌসুমে নতুন জাতটি আবাদে আগ্রহী কৃষকদের তালিকা তৈরী করতে হবে যেন প্রদর্শনীর কৃষক কর্তৃক সংরক্ষিত বীজ পরবর্তী মৌসুমে আগ্রহী কৃষকরা সহজে ব্যবহার করতে পারেন। প্রতিটি উপজেলার কৃষি উন্নয়নের জন্য স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনা গ্রহন করে সে অনুযায়ী কার্যক্রম বাস্তবায়ন করার জন্য তিনি উপস্থিত সবার প্রতি আহ্বান জানান।
মত বিনিময় অনুষ্ঠানে কৃষি মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন দপ্তর ও সংস্থার  পঞ্চাশ জন কর্মকর্তা অংশগ্রহন করেন।
 

 


Share with :

Facebook Facebook