কৃষি তথ্য সার্ভিস (এআইএস) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০

রংপুর বিভাগে গ্রামীন উন্নয়ন প্রকল্পের স্টার্টআপ কর্মশালা-২০২০ অনুষ্ঠিত


প্রকাশন তারিখ : 2020-02-02
গত ৩১ জানুয়ারী সকাল ০৯ টায় রংপুর বিভাগ কৃষি ও গ্রামীন উন্নয়ন প্রকল্পের ব্যবস্থাপনায় পর্যটন মোটেল সম্মেলন কক্ষে স্টাট আপ কর্মশালা ২০২০অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কৃষি মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. মাহবুবুল ইসলাম। সভাপতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর এর সরেজমিন উইং খামার বাড়ি ঢাকা এর পরিচালক চন্ডী দাস কুন্ড।বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী, আলী আকতার হোসেন, এল,জি,ডি, ঢাকা ও অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী, মো. আশরাফুল ইসলাম, রংপুর বিভাগ, রংপুর।
 
সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মি. জাফর বাইসার ও প্রকল্প সমন্বয়কারী ড. মো. ওয়াজিউল্লাহ । অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর রংপুর বিভাগের সকল উপপরিচালক, উপজেলা কৃষি অফিসার,কৃষি প্রকৌশলী, কৃষি তথ্য সার্ভিসসহ, এলজিইডি বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা গণ ও প্রকল্পের সুবিধা ভোগী চাষি।প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, রংপুর বিভাগে কৃষি ও গ্রামীন উন্নয়ন প্রকল্পটি এ অঞ্চলের কৃষি উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা রাখবে। কেননা রংপুর বিভাগ মানুষের অর্থনৈতিক উন্নয়নের মূলভিত্তি হলো কৃষি।
 
এছাড়া দেশের কৃষি উন্নয়নে এ অঞ্চলের কৃষির গুরুত্বপূর্ণ অবদান রয়েছে। কৃষিকে আরো এগিয়ে নিতে এ প্রকল্পটি বিশেষ সহায়ক হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। কৃষি ও গ্রামীণ অর্থনৈতিক উন্নয়ন কে তরান্বিত করতে   প্রশিক্ষণ ও মোটিভেশনাল ট্যুর খুবই প্রয়োজন। আগামী দিনের কৃষির চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় কৃষি কে যুগোপযোগী করে তুলতে হবে। কৃষিকে যান্ত্রিকীকরণ করতে হবে। আর এসব করতে প্রকল্পটি গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে। সর্বোপরি এ অঞ্চলের কৃষির উন্নয়নে মাধ্যমে দেশের সামগ্রিক কৃষি কে আর এক ধাপ এগিয়ে যাবে। এমনটাই তিনি মনে করেন এবং ইসলামী উন্নয়ন ব্যাংক (আইডিবি) কে আর্থিক সহযোগীতা করায় সরকারের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। অন্যান্য অতিথি বক্তারা বলেন এ প্রকল্পটি মেগাপ্রকল্প হিসেবে আখ্যায়িত করেন।
 
যা কৃষি ও কৃষির ভৌত অবকাঠামো উন্নয়নে সহায়তা করবে। প্রকল্প সমন্বয়কারী বলেন, এ প্রকল্পে মূল উদ্দেশ্যে হলো গ্রপ ভিত্তিক কৃষকের কৃষি প্রযুক্তি জ্ঞান দান ও গ্রামীন অবকাঠামো উন্নয়নের মাধ্যমে তাদের আয় শতকরা ১০-১৫ ভাগ বৃদ্ধি করা। সেই সাথে জীবন যাত্রারমান উন্নয়ন করা। এ প্রকল্পটি দুইটি অংশে বাস্তবায়িত হবে। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ও স্থানীয় সরকার বিভাগ বাস্তবায়ন করবে।
 
 

Share with :

Facebook Facebook