কৃষি তথ্য সার্ভিস (এআইএস) গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৭

কৃষির আধুনিক প্রযুক্তি গণমাধ্যমের সহায়তায় কৃষকের দোড়গোড়ায় পৌঁছে দেয়ার আহবান


প্রকাশন তারিখ : 2017-09-18

 

কৃষির আধুনিক প্রযুক্তি গণমাধ্যমের সহায়তায় কৃষকের দোড়গোড়ায় সহজলভ্য করে পৌঁছে দেয়ার আহবান জানান কৃষি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (সম্প্রসারণ) জনাব মো. মোশারফ হোসেন। তিনি ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৭, সোমবার কৃষি তথ্য সার্ভিস, খামারবাড়ি, ঢাকা এর  কনফারেন্স রুমে কৃষি মিডিয়াভিত্তিক ত্রৈমাসিক প্রান্তিক সভা অনুষ্ঠিনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন। তিনি আরও বলেন, কৃষিতে গবেষণার মাধ্যমে পাওয়া প্রযুক্তি এবং দেশের নানা অঞ্চলে মাঠের সাথে  সম্পৃক্ত কৃষকগণের কর্মের মধ্য দিয়ে পাওয়া প্রযুক্তি সময় মতো পৌঁছে দিতে হবে। তাহেলে আমাদের টেকসই কৃষি উন্নয়ন নিশ্চিত হবে। তিনি উল্লেখ করেন, দিন দিন আমাদের জমি কমছে, তারপরও আমাদের খাদ্য উৎপাদন বাড়ছে। এক ফসলি জমি হতে এখন চার ফসলি পর্যন্ত আবাদ হচ্ছে।  সহজ সরল ভাষায় সব ধরনের শ্রোতা ও দর্শক উপযোগী ভাষা বা শব্দ ব্যবহার ও প্রযুক্তিভিত্তিক অধিক উৎপাদন বিষয়ক সমসাময়িক বিষয় বেতার ও টেলিভিশনে প্রচারের আহবান জানান। তিনি বর্তমান সরকারের কৃষি উন্নয়নে গৃহীত পদক্ষেপ এবং সাফল্যগুলো তুলে ধরে সেগুলোকে টেকসই রূপ দিতে আরো সচেষ্ট থাকার পরামর্শ দেন।

 

অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি বাংলাদেশ বেতারের কৃষি বিষয়ক কার্যক্রমের পরিচালক শাহনাজ বেগম বলেন, বেতার এখনও সকলের নিকট জনপ্রিয় এবং বেশিরভাগ শ্রোতাদের নিকট পৌঁছানোর একটি গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম বলে আখ্যায়িত করেন।  কৃষি বিষয়ক অনুষ্ঠান প্রচার ও প্রসারের ক্ষেত্রে বেতার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। বেতার কৃষি অনুষ্ঠান ছাড়াও স্বাস্থ্য, শিক্ষা, নারী, গানের অনুষ্ঠান, বিশেষ দিবসে বিভিন্ন অনুষ্ঠানমালা প্রচার করছে। তিনি বলেন, বেতার কৃষকদের মতামত দিয়ে অনুষ্ঠান তৈরী ও সফল কৃষক নিয়ে অনুষ্ঠান করে যাচ্ছে। যাতে সহজে অন্য কৃষকরা উদ্বুদ্ধ হতে পারে।


সভায় উপস্থিত বিভন্ন প্রতিষ্ঠানের মিডিয়া ফোকাল পয়েন্টবৃন্দ বলেন, আমাদের দেশে তথ্যভিত্তিক সম্প্রচার কার্যক্রমে এক সাথে কোন একক মিডিয়া দিয়ে কৃষি তথ্য প্রযুক্তি কার্যকরভাবে সম্প্রচার/বিস্তার ফলপ্রসু হবে না। সে জন্য সম্ভাব্য সব মিডিয়াকে সম্মিলিত ও সমন্বিতভাবে কাজে লাগাতে হবে। এ প্রেক্ষিতে যারা মিডিয়া নিয়ন্ত্রণ করেন তাদের ভূমিকা অনেক বেশি ও গুরুত্বপূর্ণ বলে মতামত প্রকাশ করা হয়। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ বেতার ও বাংলাদেশ টেলিভিশনের আগামী কার্তিক-পৌষ ১৪২৪ প্রান্তিকের কৃষি তথ্য প্রযুক্তি যাচাই বাছাই করে চুড়ান্ত করা হয়। উল্লেখ্য কৃষি তথ্য সার্ভিসের সমন্বয়ে মহান স্বাধীনতার পর থেকে কৃষি তথ্য প্রযুক্তি ভেলিডেশনের এ কার্যক্রম অব্যাহত আছে, যেখানে সরকারি বেসরকারি মিলিয়ে বর্তমানে সরকারের ৮টি মন্ত্রণালয়ের প্রায় ৪০টি বিভাগ/সংস্থা/বিভাগ/দপ্তর একসাথে কাজ করেন। প্রতি বিভাগের ১জন ফোকাল পয়েন্ট কর্মকর্তা নিজ বিভাগের পক্ষে দায়িত্ব পালন করেন।


কৃষি তথ্য সার্ভিসের পরিচালক কৃষিবিদ ডক্টর মো. জাহাঙ্গীর আলম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সভা সঞ্চালনা করেন ফার্ম ব্রডকাস্টিং অফিসার মোহাম্মদ গোলাম মাওলা। সভায় প্রান্তিক সভার কার্যক্রম উপস্থাপন করেন উপপরিচালক (গণযোগাযোগ) মো. হারুন-আর-রশীদ এবং স্বাগত বক্তব্য দেন কৃষি তথ্য সার্ভিসের প্রধান তথ্য অফিসার মোহম্মদ আনোয়ার হোসেন। সভায় বিস্তারিত আলোচনার পর আগামী ৩ মাসের জন্য বেতার ও টেলিভিশনের কৃষিভিত্তিক তথ্য প্রযুক্তি চুড়ান্ত করে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হয়। আগামী ডিসেম্বর প্রথম সপ্তাহে পরবর্তী প্রান্তিক সভা অনুষ্ঠিত হবে বলে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। 


Share with :
Facebook Facebook